বৃহঃ. জানু ২৭, ২০২২

অনলাইন ডেস্কঃ
নাসা নিউজ২৪।

অনলাইন ডেস্কঃ
নাসা নিউজ২৪।

নগরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে চট্টগ্রাম জেলার জন্য অনুমোদিত গ্রাম সিরিয়ালের সিএনজি ট্যাক্সি। নগরের বিভিন্ন প্রবেশ দ্বার এবং নগরের অভ্যন্তরে অর্ধ শতাধিক এলাকায় রয়েছে গ্রাম সিএনজির দাপট।অভিযোগ রয়েছে নগরে অবৈধভাবে গ্রাম সিএনজি ট্যাক্সির দাপিয়ে বেড়ানোর নেপথ্যে রয়েছে কয়েকটি সিন্ডিকেটের হাত।এদের মধ্যে রয়েছেন পুলিশ ক্ষমতাসীন দলের নেতা এবং কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক নেতা।

তারা মাসোয়ারার বিনিময়ে গ্রামের সিএনজি ট্যাক্সিকে নগরে চলাচলের জন্য টোকেনের নামে কথিত রুট পারমিট দিয়ে থাকেন।তবে গ্রাম সিএনজি ট্যাক্সিকে চলাচলের জন্য ট্রাফিক পুলিশ কর্তৃক দেওয়া টোকেনের কথা অস্বীকার করেছেন সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক)শ্যামল কান্তি নাথ।তিনি বলেন কোনো পুলিশ সদস্য এ ধরনের কাজ করে থাকলে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।তিনি বলেন নগরে চলা গ্রাম সিএনজিগুলোর বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান চালানো হচ্ছে।

প্রায়ই এ ধরনের সিএনজি জব্দ করা হয়।অনুসন্ধানে জানা যায় মোটরযান আইন অনুযায়ী বি আর টিএর রুট পারমিট ছাড়া কোনো গাড়ি নগরে চলাচলের সুযোগ না থাকলেও এখানে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ৫ হাজারের বেশি গ্রামের সিএনজি ট্যাক্সি। ট্রাফিক পুলিশের কতিপয় পরিদর্শকদের টোকেন নিয়ে নগরের অর্ধশতাধিক এলাকায় চলছে চট্টগ্রাম প্রাইভেট এবং নিলাম লেখা রুট পারমিটবিহীন সিএনজি ট্যাক্সি। চট্টগ্রামের সিএনজি ট্যাক্সি নগরে চলাচলের অনুমতির জন্য কথিত লাইন খরচের নামে এককালীন দিতে হয় ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা।

তার পাশাপাশি মাসিক লাইন খরচ, টিআই খরচ থানা খরচ নামে প্রত্যেক সিএনজি থেকে মাসিক আদায় করা হয় আড়াই হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা।প্রতি মাসে ৫ হাজার সিএনজি ট্যাক্সি থেকে আদায় করা হয় কম পক্ষে দেড় কোটি টাকা।এ ছাড়া এসব স্পট থেকে বেবিট্যাক্সি(সিএনজি)টেম্পু ড্রাইভার্স ইউনিয়ন, সহকারী ইউনিয়ন, অটোরিকশা অটোটেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠনের নামে সিএনজি ট্যাক্সি প্রতি আদায় করা হয় দৈনিক ৫০ থেকে ১০০ টাকা।চট্টগ্রাম নগরে গ্রাম সিএনজি ট্যাক্সি চলাচল করে।

এমন স্পটগুলোর মধ্যে রয়েছে- টাইগারপাস থেকে ওয়্যারলেস, পাহাড়তলী পুলিশ বিট, ঝাউতলা, শাহ আমানত সেতু এলাকা, মুরাদপুর,বায়েজিদ,হিলভিউ আবাসিক,অক্সিজেন,মুরাদপুর, বহদ্দারহাট,কাপ্তাই রাস্তার মাথা, বহদ্দারহাট হক মার্কেট পয়েন্ট থেকে হাজীপাড়া,বহদ্দারহাট হক মার্কেট পয়েন্ট থেকে চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল হাসপাতাল,বহদ্দারহাট থেকে মৌলভী পুকুর পাড়-বাহির সিগন্যাল, সিঅ্যান্ডবি মোড় থেকে ১৪ নম্বর গ্যারেজ পাঠাইন্নাগোদা,সিঅ্যান্ডবি মোড় থেকে হামিদচর-বিসিক শিল্প এলাকা,সিঅ্যান্ডবি মোড় থেকে দেশ গার্মেন্টস,খাজা রোডের মুখ থেকে রাহাত্তারপুল,খাজা রোডের মুখ থেকে বলিরহাট,ফ্রিপোর্ট,বন্দর, পতেঙ্গা,হালিশহর,পাহাড়তলী এবং আকবর শাহর বেশ কিছু এলাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.