অনলাইন নিউজ ডেস্কঃ

ফাইল ছবি।নাসা নিউজ২৪

করোনার কারণে বন্ধ থাকার দেড় বছর পর আজ শুরু হচ্ছে দেশের সবচেয়ে বড় পাবলিক পরীক্ষা। সারাদেশে ২২ লাখ শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে শুরু হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। ইতোমধ্যে পরীক্ষা নিতে প্রস্তুত কেন্দ্রগুলো। শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করেই আসন বিন্যাস করা হয়েছে। ভিড় কমাতে পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে একজনের বেশি অভিভাবক না আসতে অনুরোধ করেছেন শিক্ষকরা।

প্রতি বেঞ্চে কোনাকুনি একজন করে বসিয়ে করা হয়েছে আসনবিন্যাস। সংক্রমণ কমে এলেও সব ধরনের সতর্কতা মাথায় রেখেই পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে হচ্ছে এবারের এসএসসি পরীক্ষা। শুধু বিভাগভিত্তিক বিষয়গুলো নিয়ে জোরদার প্রস্তুতি নিচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

ফাইল ছবি।নাসা নিউজ২৪

আজ শুরু হয়ে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে এবারের এসএসসি পরীক্ষা। চলতি বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেবেন। ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে মোট ২৯ হাজার ৩৫টি স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের এসএসসি ও সমমানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। ৯টি সাধারণ বোর্ড থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবেন ১৭ হাজার ৬৭৬টি স্কুলের ১৮ লাখ ৯৯৮ জন শিক্ষার্থী। আর ৯ হাজার ১১০টি মাদ্রাসার ৩ লাখ ১ হাজার ৮৮৭ জন পরীক্ষার্থী ৭১০টি কেন্দ্রে দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষায় অংশ নেবে ২ হাজার ৩৪৯টি কারিগরি প্রতিষ্ঠানের ১ লাখ ২৪ হাজার ২২৮ জন শিক্ষার্থী।

গতবছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন। গত বছরের থেকে চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৩৩৪ জন। গত বছরের থেকে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র বেড়েছে ১৬৭টি। আর প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ১৫১টি।