গুগল ম্যাপ ব্যবহার করে না এমন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী পাওয়া দুষ্কর। হোক কোনো স্থান খোঁজার জন্য কিংবা রাস্তায় জ্যামের অবস্থা জানার জন্য। রেস্টুরেন্টে যাওয়া কিংবা অন্য কোনো গন্তব্যে পৌঁছানো, এমনকি রাইড শেয়ারিং এবং ফুড ডেলিভারি কোম্পানিগুলো এ ম্যাপের ওপর নির্ভর করে চলছে। পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশেই রাস্তা যুক্ত করার কার্যক্রম চলছিল কিন্তু বাংলাদেশে বন্ধ ছিল ২০১৭ সাল থেকে গুগলের সাবেক ম্যাপ এডিটিং প্ল্যাটফর্ম ম্যাপ মেকার বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর। নতুন করে আবার বাংলাদেশসহ সর্ব মোট ১২টি দেশের রাস্তা যুক্তকরণের কার্যক্রম শুরু করেছে গুগল ম্যাপস কর্তৃপক্ষ। রোড ম্যাপার নামে একটি আলাদা প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে শুধু নির্দিষ্ট কিছু লোকাল গাইড মেম্বারদেরকে অ্যাক্সেস দেওয়া হয়েছে এক প্লাটফর্মে রাস্তা যুক্ত করেন। নতুন এ প্ল্যাটফরমে যুক্ত হতে চাইলে কি করণীয় এমন প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশ লোকাল গাইড কমিউনিটি মডারেটর মাহাবুব হাসান যুগান্তরকে বলেন, এখানে যুক্ত হতে ম্যাপার আইডি লেভেলকে গুরুত্ব দেওয়া হয় না। কারণ, একজন ম্যাপারের পূর্বের কর্মদক্ষতার ওপর ভিত্তি করেই গুগল ম্যাপ কমিউনিটি তাদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমি এখন পর্যন্ত প্রায় ১৩টি দেশে ৫২ হাজারের অধিক কিলোমিটার রাস্তা যুক্ত করেছি এবং প্রতিনিয়ত ম্যাপারদের গাইড করছি সঠিকভাবে রাস্তা যুক্ত করার ক্ষেত্রে। আর ইতোমধ্যে বাংলাদেশেও প্রায় চার হাজার কিলোমিটারেরও বেশি রাস্তা যুক্ত করেছে বাংলাদেশের রোড ম্যাপাররা।